ব্লগিং এ কত টাকা আয় করা যায়
Spread the love

ব্লগিং নামটার সাথে যেন আমরা অনেক পরিচিত হয়ে উঠেছি। ইন্টারনেট তৈরি হবার প্রথম দিকে মানুষ শখের বসে ব্লগ লিখতো, এরপর শখ পেশাতে পরিণত হলো, কেউ কখনো কল্পনাও করতে পারেনি যে ব্লগিং এত বড় একটা ইন্ডাস্ট্রিতে পরিণত হবে। 

ইন্টারনেটের প্রসারের সাথে সাথে মানুষের তথ্যর চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পেয়ে চলছে, আর এই তথ্যর বিশাল পরিমাণ চাহিদা মেটাতে দিনের পর দিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছে ব্লগাররা। আমাদের দেশে ব্লগিং কে হয়তো খুব একটা বড় পেশা হিসেবে ধরা হয়না কেননা, আমাদের দেশের মানুষজন ব্লগিং সম্পর্কে এতটা অবগত নয়। কিন্তু ইউরোপের দেশগুলোতে ব্লগিং পেশাটিকে অনেক সম্মানের চোখে দেখা হয় এবং তাঁরা এটাও জানে একজন ব্লগারের লাইফ স্টাইল কেমন বা তাঁরা কি পরিমাণ ইনকাম করে থাকে।

বর্তমান সময়ে  ব্লগিং পেশাটা এখন এতটাই জনপ্রিয় যে, প্রতিদিন সারা পৃথিবীজুড়ে লক্ষাধিক এর বেশি পরিমাণ ব্লগ সাইট তৈরি হচ্ছে। এই পেশাতে পৃথিবীর যে কোন প্র্রান্ত থেকে, যে কোন বয়সের মানুষ তাঁর ক্যারিয়ার গড়তে পারে, কোন একাডেমিক সার্টিফিকেটের প্রয়োজন নেই। ব্লগিং একটা মুক্ত পেশা, প্রত্যেকটা ব্লগার তাঁর ইচ্ছা স্বাধীন মতো কাজ করতে পারে। 

ব্লগিং কি? ব্লগার কারা? এই সমস্থ কিছু বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ইদানিং দেখা যাচ্ছে তরুণরা এই পেশাতে বেশি পরিমাণ আগ্রহ দেখাচ্ছে, কেনই বা দেখাবে না? একদিকে ব্লগারদের জন্য যেমন রয়েছে সুন্দর ক্যারিয়ারের নিশ্চয়তা অপরদিকে ব্লগিং শুরু করার জন্য তেমন অর্থে বেশি কিছুর প্রয়োজন নেই। 

  • একটি কম্পিউটার।
  • ইন্টারনেট কানেকশন।
  • শুরু করার জন্য ৫-১০ হাজার টাকা।
  • লেখার দক্ষতা।

ব্যাস এই কয়টি জিনিস থাকলেই ব্লগিং শুরু করা যেতে পারে।

তো যে ব্লগিং নিয়ে মানুষের এত আগ্রহ এত ইচ্ছা, আজকে সেই ব্লগিং ইন্ডাস্ট্রির ৫ জন সেরা ব্লগারদের নিয়ে কথা বলবো। যারাও একদিন শূন্য থেকে শুরু করেছিলো এবং আজকের এই পর্যায়ে পৌছে গেছে।

বিশ্বসেরা ৫ জন ব্লগার এবং তাঁদের মাসিক ইনকাম

নাম্বার ১: আরিয়ানা হাফিংটন।

ব্লগের নাম: হাফিংটন পোস্ট।

ওয়েবসাইট: https://www.huffpost.com/

ব্লগিং শুরু করেন: ২০০৫ সালে।

প্রতি মাসে ব্লগ ভিজিটর: ৭৫.৪০ মিলিয়ন।

প্রতি মাসে ইনকাম: ৪১,৬৬০,০০০ ডলার।

আরিয়ানা হাফিংটন এর হাত ধরে ২০০৫ সালে হাফিংটন পোস্ট ব্লগটি শুরু হয়। হাফিংটন পোস্ট এর ব্লগিং এর মূল বিষয় ছিলো পলিটিক্স এবং লাইফস্টাইল। এই ব্লগটি ১ বিলিয়ন ডলারেও বেশি আয় করেছে। তাঁদের আয়ের মূল উৎস ছিল বিজ্ঞাপন। এটি পৃথিবীর সব থেকে সেরা সাকসেসফুল একটি ব্লগ।

নাম্বার ২: পিটার রোজাস

ব্লগের নাম: এনগ্যাজেট।

ওয়েবসাইট: https://www.engadget.com/

ব্লগিং শুরু করেন: ২০০৪ সালে।

প্রতি মাসে ব্লগ ভিজিটর: ৩০ মিলিয়ন।

প্রতি মাসে ইনকাম: ৩,৯৫০,০০০ ডলার।

এনগ্যাজেট ব্লগটি পিটার রোজাস ২০০৪ সালে প্রতিষ্ঠা করেন। গেমিং, বিনোদন, রিভিউ, টেকনোলজি এবং কনজিউমার ইলেকট্রনিক্স এ এই ব্লগটি  সব থেকে বেশি জনপ্রিয়। এনগ্যাজেটকে ওয়ল্ডার্ডের সেরা অন্যতম একটি ব্লগ বলা হয়।

বাংলাদেশের সেরা ১০ টি কোম্পানি সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

নাম্বার ৩: রান্ড ফিশকিন

ব্লগের নাম: মোজ।

ওয়েবসাইট: https://moz.com/

ব্লগিং শুরু করেন: ১৯৯৮ সালে।

প্রতি মাসে ব্লগ ভিজিটর: ৩.১ মিলিয়ন।

প্রতি মাসে ইনকাম: ৩,৭৪০,০০০ ডলার।

মোজ ব্লগটি মূলত সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের জন্য খুবই জনপ্রিয়। এই ব্লগটি প্রতিনিয়ত অসংখ্যা আইটি প্রফেশনালদের সাহায্য করে যাচ্ছে, বিশেষ করে ডিজিটাল মার্কেটার এবং ব্লগারদের। মোজ ব্লগটিও পৃথিবীর অন্যতম সেরা আয়কৃত একটি ব্লগ।

নাম্বার ৪: পিট ক্যাশমোর

ব্লগের নাম: মাশাবল।

ওয়েবসাইট: https://mashable.com/

ব্লগিং শুরু করেন: ২০০৫ সালে।

প্রতি মাসে ব্লগ ভিজিটর: ১৩.১০ মিলিয়ন।

প্রতি মাসে ইনকাম: ৩,৩৩০,০০০ ডলার।।

মাশাবল ব্লগটি ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়। মাশাবল ব্লগের মূল বিষয়-বস্তু ছিলো  টেকনোলজি, সাইন্স, বিনোদন, ট্রাভেল, সংস্কৃতি ইত্যাদি।  তাঁরা বিভিন্ন ধরনের ক্যাটাগরির বিজ্ঞাপন থেকে ইনকাম করে আসছে।

নাম্বার ৫: মাইকেল অ্যারিংটন

ব্লগের নাম: টেকক্রাঞ্চ।

ওয়েবসাইট: https://techcrunch.com/

ব্লগিং শুরু করেন: ২০০৫ সালে।

প্রতি মাসে ব্লগ ভিজিটর: ১৫.৪০ মিলিয়ন।

প্রতি মাসে ইনকাম: ১,৮৭০,০০০ ডলার।।

টেকক্রাঞ্চ খবই জনপ্রিয় একটি টেক নিউজ ব্লগ, যেটি শুরু করা হয় ২০০৫ সালে। টেকক্রাঞ্চ এ সাধারণত স্টার্টআপ, টেক নিউজ, অ্যাপস, গ্যাজেট, মোবাইল ইত্যাদি নিয়ে ব্লগ লেখা হয়। ২০১০ সালে টেকক্রাঞ্চ মালিকানা পরিবর্তন করে এওএল নিয়ে নেয়।

তো পাঠক এই ছিলো, বিশ্বসেরা ৫ জন ব্লগার এবং তাঁদের মাসিক ইনকাম। আশা করি যারা ব্লগিং সম্পর্কে জানেন না তাঁরা একটু হলেও কিছু ধারণা পেয়েছেন এবং যারা ব্লগিং পেশাতে আসতে চাচ্ছেন তাঁরাও অনুপ্রাণিত হয়েছেন। আজকের মতো এখানেই বিদায় নিচ্ছি ব্লগিং নিয়ে সামনে আমাদের আরো অনেক আর্টিকেল আসতে চলেছে তাই ততক্ষণ পর্যন্ত আইটি কথার সঙ্গেই থাকুন।

By Rezaul Islam Tasin

আমি রেজাউল ইসলাম তাছিন । লেখাপড়ার পাশাপাশি পেশায় একজন আইটি প্রফেশনাল। গত ছয় বছর ধরে অনলাইনে কাজ করছি । বই পড়া এবং আইটি নিয়ে ঘাটাঘাটি করা আমার নেশা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!